অভিমান ও দূরত্ব

ইউ ডি সূর্য বিদায়ের অপেক্ষা তারপর অফুরান অন্ধকার নিস্তব্ধতার আবরণে ঢেকে যাবে জীবনের অসমাপ্ত পান্ডুলিপি। প্রত্যুষ, মধ্যাহ্ন, বিকেল এবং সন্ধ্যা এদের প্রতি অভিযোগ-অনুযোগ কোনটাই আর...


পেটের ক্ষুধা হয়েছে গাঙচিল

মিথোশক্রিয়া তোমার আঁচল ঝলমল করে রোদের ঝলকে ময়ূর পঙ্খির পালক আঁকা লতায়-পাতায় আঁকা-বাঁকা তোমার আঁচল যে। তোমার শাড়ি বুনন হইছে রঙের সুতাতে ঘাসের রঙে মেঘের...


গুচ্ছকথা

১. মানুষ জন্মের আগেই জয়ী হতে শেখে। ২. স্রস্টার এক ও অদ্বিতীয় প্রত্যক্ষ স্বরূপ—বাবা-মা। ৩. সময়ের পরিভাষায়—মাতৃগর্ভে রত্নধারণ ইতিহাসের অংশবিশেষ। ৪. নোঙর গেড়েও কেউ বেশিদিন...


শীতের শয়তান

স্ক্যান্ডিনেভিয়া স্নিগ্ধতার সাদা শীত— অবশ জমাট স্ক্যান্ডিনেভিয়ার অরণ্যে নির্ঝঞ্ঝাট এই শীত। অ্যালকোহল নির্যাস ছোঁয়া— হালাল ঝলসানো মাংস—আর নির্জন স্নিগ্ধতা কারো দেহের ওপর! তুষার পেঁচার মতো...


পূর্ণিমায় লিখছি

মাঠ প্রলুব্ধ তাকিয়ে আছে চাঁদ মাঠ ভেসে যাচ্ছে তোমার লাবণ্যে একপাল অকাট্য শিয়াল মাঠময় হল্লা করে ফিরে যাচ্ছে যার যার ইচ্ছের বিবরে চরাচর আমুদে আহ্লাদে...


দ্রষ্টব্য রোমন্থন

আবুল হাসান; একক ফুলবাহার অনন্ত নক্ষত্রবীথিতে হারিয়ে যাব একদিন। ক্রমশ হারানোর খেলায় সবই দেখি। কখনো বিশ্বমঞ্চের বাঘা অভিনেতা হই। দেনা-পাওনার হিসাব কষি। গহীন একাকীত্বে ভাবি-...


স্বপ্ন মাথা নোয়াতে জানে না

কারও ভেতরে আমরা হৃৎপিন্ড দেখতে পাই না, মগজ দেখতে পাই না, কবিতা দেখতে পাই না; যে-দিকেই তাকাই চারদিকে অন্ধকার না তাকালেও দেখতে পাই অন্ধকারের রাজত্ব।...


কাল বয়ে চলে নিরবধি, বেদনা স্থির

দ্বিধা অতল জলের তলে ছড়িয়েছ সুখ দ্বিধান্বিত আমি ছিলাম অরণ্য সমুখ। পাল তোলা নাও গেছে দখিণা হাওয়া বিপণি-সারস ডাকে সেই তো পাওয়া। দিয়েছ বিলিয়ে আঁচলের...


ধানের চিটা

ভাষার সি-বিচে ১ আমাকে কথার বিষে, কত লোক ধরাশায়ী করে; কতদিন আগের দেয়াল, মোছে নাম, নরোম রাবারে! এতো ওড়ে হাওড়-কুয়াশা, এতো ধূলা, স্মৃতির কবজ; এতো...


সিসিফাস মৈথুন

যে মঞ্চে কোনো নায়ক নাই যে মঞ্চে নায়ক নাই কোনো—অনুকার কুশিলব শোরগোলে হুলুস্থুল কাণ্ড; ভোঁদর নাচনে মাতে বেদম তামাশা, ডুগডুগি বাজায় কেউ, দেয় হাততালি, কে...