পরদেশে পরবাসী ॥ পর্ব ২০

দিলদার, সবুজ, আজরাফ ও আমি ছাড়া বাকিরা বেরিয়ে পড়লেন। একটি আত্মতুষ্টির আবেশে মাতোয়ারা হয়ে দিলদার তার সুন্দর সিগারেট কেস থেকে একটি সিগারেট বের করে ধরাল।...


পরদেশে পরবাসী ॥ পর্ব ১৯

চতুর্থ অধ্যায় ৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৬২। রোববার। সকাল। ঘুম ভেঙেছে কিছুক্ষণ হলো, কিন্তু বিছানা ছেড়ে উঠতে ইচ্ছে হচ্ছে না। তিন সপ্তাহ হয়েছে লন্ডন এসেছি, ঘুর ঘুর...


পরদেশে পরবাসী ॥ পর্ব ১৮

বিছানাটা খাবারঘরে থাকায় আজ সুবিধে উপলব্ধি করছি, পাশের রান্নাঘরের উৎতাপে এই ঘরটি কিছুটা হলেও গরম থাকে। বাকি শীতটুকু অবশ্য একটা অ্যারফিন হিটারকে দিয়ে মিটিয়ে নেওয়া...


পরদেশে পরবাসী ॥ পর্ব ১৭

তারপর তিনি অবুঝ স্বামীর মতো মাথা দুলিয়ে কিন্তু শক্ত গলায় বললেন যে, আমি যেন এক্ষুণি তার বাসায় চলে যাই। তার স্ত্রী আমার জন্য অপেক্ষা করছেন।...


পরদেশে পরবাসী ॥ পর্ব ১৬

সকালে উঠেই লন্ডন শহরের পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত ফোর্ড কোম্পানির বিরাট কার ফ্যাক্টরিতে পৌঁছে যাই, কাজের সন্ধানে। ডাগেনহ্যাম পাতালস্টেশন থেকে বেশ দূরে। হেঁটে আসতে যে-সময় লেগেছে তাতে...


পরদেশে পরবাসী ॥ পর্ব ১৫

রাত্রে বিছানায় শুয়ে শুয়ে ছাদের দিকে তাকিয়ে অন্যমনস্কভাবে ভাবছি মামুজির কথা। দিয়াশলাই জ্বালানোর শব্দে ঘাড় ফেরাতেই চোখ নিবদ্ধ হলো মামুজির ওপর। একটা আরাম কেদারায় পা...


পরদেশে পরবাসী ॥ পর্ব ১৪

শীতকালে ডাবল নট দিলে টনসিল রক্ষা পায়, শীতের প্রকোপ থেকে। কি বলো? জিজ্ঞেস করি, তোমাকে কেউ কেউ জন বলে ডাকে কেন? উত্তরে মুচকি হেসে বলল,...


পরদেশে পরবাসী ॥ পর্ব ১৩

তৃতীয় অধ্যায় মামুজির ডাকে ঘুম ভাঙল। আমার আশ্রয়স্থল ৪৩ নম্বর সেন্টল স্ট্রিটের খাবার কামরায় সকলের অবাধগতি। প্রাইভেসি বলতে কিছুই নেই। পরের বাড়ি, অনেক ঝামেলা। চোখ...


পরদেশে পরবাসী ॥ পর্ব ১২

কার্তিক প্রতিম বলিষ্ঠ তরুণটি একপ্লেট ভাত নিয়ে ফিরে এলো। সহসা তার দিকে চোখ তুলে তাকাতেই দেখতে পাই, তার পরনে নিতান্তই সাদাসিধে পোশাক। আনন্দের একটি সুগভীর-প্রসন্ন-শান্ত-দীপ্ত-রেখা...


পরদেশে পরবাসী ॥ পর্ব ১১

জাহাজ ছাড়ার দুদিন আগে আমরা এসে উপস্থিত হই চট্টগ্রামে। আশ্রয়স্থল শিরীণের মেসোর বাড়ি। এখানে আরেক বিপর্যয়। মাসিশাশুড়িকে প্রণাম করতে উদ্যোগ নিতেই শিরীণ বাধা দিয়ে বলল,...